সরকারি কর্মচারীদের পাঁচ বছর পরপর সম্পদের হিসাব দিতে হবে

Sohag Sheikh ১ জুন, ২০১৮ জাতীয়
img

কোনো সরকারি কর্মচারী সরকারের অনুমোদন ছাড়া কোনো মিডিয়া কিংবা যোগাযোগ মাধ্যমে কোনো বক্তব্য দিতে পারবেন না, এমনই বিধান রেখে আসছে কঠিন বিধিমালা। এর পাশাপাশি প্রত্যেক কর্মচারীকে পাঁচ বছর পরপর তাদের সম্পদের হিসাব দিতে হবে। এমনকি, কোনো কর্মচারী তার নিজের অধিক্ষেত্রে কাউকে কোনো টাকা ঋণ দিতে পারবেন না। নিতেও পারবেন না। আর যদি কোনো কর্মচারীর স্বামী কিংবা স্ত্রী কোনো রাজনৈতিক দলের সদস্য হন তা সরকারের কাছে লিখিত জানাতে হবে। কেউ যদি এই বিধিমালা না মানেন তা হলে সেটি অসদাচরণ বলে গণ্য হবে। শুধু তাই নয়, এর জন্য শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। নতুন এই আচরণ বিধিমালা-২০১৮ নামে করা হচ্ছে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে। এ ব্যাপারে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তা জানান, এটি এখন খসড়া তৈরি করা হচ্ছে। আগামীতে এটি প্রশাসনিক উন্নয়নসংক্রান্ত সচিব কমিটিতে উপস্থাপন করা হবে। সেখানে অনুমোদন পেলে তখন তা গেজেট আকারে প্রকাশ করা হবে। এদিকে সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র দাবি করেছে, নির্বাচনের বছর হিসেবে এই বিধিমালা চূড়ান্ত করা নিয়ে বেশ কিছু দ্বিধাদ্বন্দ্বে রয়েছেন সরকারের নীতি নির্ধারকরা। কারণ, এ সময়ে এ ধরনের একটি আচরণ বিধিমালা অনেক কর্মচারীকে অসন্তুষ্ট করে তুলতে পারে। আবার অনেক কর্মচারী সংগঠন রয়েছে যারা সরকারের পৃষ্ঠপোষকতা পাচ্ছে। তবে সরকারের উচ্চমহলে একটি নির্দেশনা রয়েছে, উন্নয়লমূলক কর্মকাণ্ড তুলে ধরার ব্যাপারে রাজনৈতিক নেতাদের পাশাপাশি কর্মচারীরা গণমাধ্যমে অংশ নেয়ার ব্যাপারে কোনো আপত্তি থাকার কথা নয়। সাম্প্রতিক সময়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ইনোভেশন সংক্রান্ত এক সভায় উল্লেখ করা হয়েছে, কেউ যদি কোনো ধরনের গবেষণাধর্মী কোনো লেখা পত্রিকায় কিংবা বই আকারে প্রকাশ করে তা সরকারের অনুমতি নেয়ার প্রয়োজন হবে না। কিন্তু সরকারকে বিব্রত করে কিংবা জনগণকে সরকারের বিরুদ্ধে উসকে দিতে পারে এমন লেখার ব্যাপারে অবশ্যই নজরদারি থাকা প্রয়োজন বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা। নতুন বিধিমালায় কোনো কর্মচারী যদি কোনো গণমাধ্যমে অংশগ্রহণ করতে চান তা হলে তাকে অবশ্যই সরকারের অনুমতি নিতে হবে। অনুমোদন ছাড়া কোনো ধরনের বক্তব্য দেয়া হোক তা গণমাধ্যম কিংবা যোগাযোগ মাধ্যম সেটি হবে অসদাচরণ। এটি সবার জন্য প্রযোজ্য হবে বলে আভাস পাওয়া গেছে। কোনো কর্মচারী যদি ছুটিতে থাকেন কিংবা কোনো প্রতিষ্ঠানে প্রেষণে থাকেন তা হলেও এটি তার জন্য প্রযোজ্য হবে। বিধিমালায় সরকারি কর্মচারীর পরিবার সম্পর্কে স্পষ্ট করা হয়েছে। বলা হয়েছে, তার সঙ্গে বসবাস করুক না নাইবা করুক তার স্ত্রী, সন্তান, সৎ সন্তান কিংবা তরা সঙ্গে বসবাসরত তার আত্মীয় বা স্ত্রীর আত্মীয় পরিবারের সদস্য হিসেবে বিবেচিত হবেন। কোনো সরকারি কর্মচারী নিজে কিংবা তার পরিবারের কাছ থেকে এমন কোনো উপহার নেবেন না যা গ্রহণ করলে তিনি উপহারদাতার কাছে বাধ্যবাধকতায় আবদ্ধ হন। আর যদি গ্রহণ করতেই হয় তা হলে গ্রহণের আগে নিষ্পত্তির জন্য সরকারের কাছে উপস্থাপন করতে হবে। তবে ধর্মীয় বা সামাজিক প্রথা অনুসারে বিয়ের অনুষ্ঠান, বিয়ে বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে উপহার গ্রহণ করা যাবে। ব্যক্তিগত বন্ধু বা নিকট আত্মীয়ের কাছ থেকে উপহার গ্রহণ করা যাবে। কিন্তু অবশ্যই ৫০ হাজার টাকার মধ্যে হতে হবে। এর বেশি হলে সরকারের নজরে আনতে হবে। আর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা দেশি বিদেশি প্রতিষ্ঠান থেকে ৪০ হাজার টাকার মূল্যমানের উপহার সামগ্রী গ্রহণ করতে পারবেন। যৌতুকের ব্যাপারে বিধিমালায় বেশ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। কোনো কর্মচারী যৌতুক নিয়ে বিয়ে করতে পারবেন না। এমনকি, যৌতুক নেয়া আর দেয়ার ক্ষেত্রে কাউকে প্ররোচিত করতে পারবেন না। প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে যৌতুক দেয়া ও নেয়ার ক্ষেত্রে কন্যা কিংবা বরের পিতা মাতার কাছে কোনোভাবেই চাপ দেয়া যাবে না। এমনকি, কোনো ধরনের দাবি করতে পারবেন না। কোনো সরকারি কর্মচারী রাষ্ট্রপতির অনুমোদন ছাড়া কোনো বিদেশি পুরস্কার গ্রহণ করতে পারবেন না। কোনো সরকারি কর্মচারী তার সম্মানে কেবলই তাকেই প্রশংসা করার উদ্দেশ্যে কোনো বত্তৃদ্ধতা কিংবা কোনো আপ্যায়ন অনুষ্ঠানে উৎসাহ প্রদান করতে পারবেন না। তবে চাকরি থেকে অবসর কিংবা বদলির সময় অনানুষ্ঠানিক বিদায় অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। চাঁদাবাজি নিয়ে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করা হয়েছে প্রস্তাবিত বিধিমালায়। উল্লেখ করা হয়েছে, চাঁদা আদায়ের ক্ষেত্রে কোনো সরকারি কর্মচারী জড়াতে পারবেন না। এমনকি, কাউকে চাঁদা দেয়ার জন্য চাপ দেয়া যাবে না। কারণ সরকার মনে করে চাঁদা দেয়ার বিষয়টি স্বেচ্ছাধীন বিষয়। এখানে বর্ডার গার্ড, কোস্টগার্ড, পুলিশ, র‌্যাব, আনসার, দুদক, শুল্ক, আবগারি বিভাগ, আয়কর, ও খাদ্য বিভাগের কোনো কর্মচারী কোনোভাবেই তহবিল সংগ্রহে সংশ্লিষ্ট করা যাবে না। কোনো সরকারি কর্মচারী তার অধিক্ষেত্রে দাফতরিক কাজের জন্য কিংবা সে সম্পর্কিত কোনো ব্যক্তির কাছ থেকে কোনো ধরনের টাকা ঋণ নিতে পারবেন না। তবে যৌথ মূলধনী কার

সম্পর্কিত পোস্ট

img
এইচটি ইমাম অসুস্থ, . . . .
১৭ অক্টোবর, ২০১৮
img
সৌদি আরব সফর . . . .
১৭ অক্টোবর, ২০১৮

আমাদের ফেইসবুক

রাশিফল

  • sagittarius

    মেষ

  • sagittarius

    বৃষ

  • sagittarius

    মিথুন

  • sagittarius

    কর্কট

  • sagittarius

    সিংহ

  • sagittarius

    কন্যা

  • sagittarius

    তুলা

  • sagittarius

    বৃশ্চিক

  • sagittarius

    মকর

  • sagittarius

    কুম্ভ

  • sagittarius

    মীন

  • sagittarius

    ধনু

  • মেষ (২১ জানুয়ারী-২৮ ফ্রেরুয়ারী)

    ব্যক্তিগত যোগাযোগ সাফল্যের দিগন্তে পৌঁছে দিতে পারে। দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে পারে। প্রাণের মানুষ প্রাণের পরে পদাঘাত করতে পারে, সতর্ক থাকুন।আপনি সব ব্যথা সয়ে নিতে পারেন এটাও পারবেন।

  • বৃষ (২১ এপ্রিল-২১ মে)

    এসপ্তাহে হাতে যখন বেশ কিছু টাকা পয়সা আসবে তখন টাকাটা একটু কাজে লাগাবার চেষ্টা করুন। অতিথি, বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে মিলন ঘটবে। পরিবারের কেউ অসুস্থ হতে পারে।  মনের লেনাদেনা খারপ যাবেনা। 

  • মিথুন (২২ মে-২১ জুন)

    এসপ্তাহে আপনার দেহ মনের খবর ভাল। মনন চর্চায় নতুন উৎকর্ষে পৌঁছোবেন।

    পরিবার পরিজনের খোঁজ খবর রাখুন। সপ্তাহ জুড়ে ভাও যাবে সময়। 

     

     

  • কর্কট (২২ জুন-২২ জুলাই)

     

    খরচাটা একটু কমান। পূর্বের কোনো কর্মের ফল ভোগ করতে হতে পারে।। স্বল্প দূরত্বে ভ্রমণ হতে পারে। ছোট ভাইবোনের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো যাবে। প্রয়োজনে তাদের সমর্থন ও সহযোগিতা পাবেন।

  • সিংহ (২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট)

     

    এসপ্তাহে টাকা পয়সা প্রাপ্তি আপনাকে উৎফুল্ল রাখবে। পরিবার বন্দু-বান্ধব উপকারে এগিয়ে আসবে। সাবধানে চলাচল করুন। একটু অসাবধানতার কারণে দুর্ঘটনায় পতিত হতে পারেন। 

  • কন্যা (২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর)

    নতুন কাজে যুক্ত হতে পারেন। পেশাগত দিক ভালো যাবে। কর্মক্ষেত্রে সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধি পাবে। সামাজিক অগ্রগতি অব্যাহত থাকবে। আয় উপার্জন বৃদ্ধির যোগ রয়েছে। 

  • তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর)

    ধর্ম কর্মে মন নিবেশ হবে। ভাগ্যোন্নয়ণে প্রবীণ কারও দিকনির্দেশনা লাভ করতে পারেন। কর্মক্ষত্র থাকবে আপনার পক্ষে। বুঝে শুনে চললে ব্যবসা ভাল যাবে। 

  • বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর)

    কাজের চাপ বাড়বে। কাজ ফেলে না রেখে রুটিন অনুসারে করার চেষ্টা করুন।মানসিক চাপ পাত্তা দেবেন না। নিজেকে সংযত রাখুন, অন্যথায় সামাজিক বদনামের শিকার হতে পারেন। আনন্দময় সময় কাটানোরও সুযোগ পেতে পারেন।

  • মকর (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি)

    শরীর খুব একটা ভালো নাও যেতে পারে। আহারে বিহারে সাবধানতা অবলম্বন করুন। কোনো ভুল সিদ্ধান্তের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা রয়েছে। কর্মক্ষেত্রে দায় দায়িত্ব বাড়বে, বিতর্ক এড়িয়ে চলুন। 

  • কুম্ভ (২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

    দূরদর্শী চিন্তাভাবনা আপনাকে সতেজ ও প্রাণবন্ত রাখবে। গবেষণামূলক কর্মকাণ্ডের জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।  সাময়িকভাবে শরীর কম ভালো যেতে পারে। 

  • মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

    আজ আপনার সেই ইচ্ছেটা  পূর্ণ হতে পারে। প্রেম ও দাম্পত্য বিষয়ে বোঝাপড়া সহজ হবে। কেউ কেউ স্থাবর সম্পত্তিতে বিনিয়োগ করতে পারেন।  ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে।

  • ধনু (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর)

    দাম্পত্য সম্পর্ক মোটামুটি ভালো যাবে। পারিবারিক সুখশান্তি বজায় থাকবে। কোনো বিষয়ে চুক্তি হতে পারে। কোনো ধরনের প্রতিযোগীতার সম্মুখীন হতে পারেন। বিশেষ কোনো দক্ষতার জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।

পাঠক মতামত

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকারের কাছে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি মামাবাড়ির আবদার। তার এ বক্তব্যের সঙ্গে আপনি কি একমত?
ভোট দিয়েছেন জন
হ্যাঁ
না
মন্তব্য নেই