দেশের বর্তমান রাজনৈতিক অবস্থার দ্রুতই পরিবর্তন হবে: ড. কামাল

Sohag Sheikh ১০ আগস্ট, ২০১৮ রাজনীতি
img

দেশের বর্তমান রাজনৈতিক অবস্থার দ্রুতই পরিবর্তন হবে বলে মন্তব্য করেছেন সংবিধান প্রণেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন। জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া- এর আয়োজনে ‘কার্যকর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় দেশের মালিক জনগণের করণীয়’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

 
তিনি বলেন, ১৯৮৯ সালে এরশাদ সরকারের আমলে ব্রিটিশ মন্ত্রী আমাকে বলেন- তোমার প্রেসিডেন্টের সঙ্গে দেখা করে এসেছি। তিনি বললেন- আরো ১৫ বছর ক্ষমতায় থাকবেন। আমি তখন বললাম, আমি তো তাকে ১৫ সপ্তাহও ক্ষমতায় দেখিনা। তখন সেপ্টেম্বর মাস ছিল।
 
আল্লাহর রহমতে ১৫ সপ্তাহের মধ্যেই আমরা মুক্ত হলাম। আমি ১৯৯১ সালে আমি লন্ডনে গেলে ব্রিটিশ ফরেন মিনিস্টার আমাকে দেখে লাফ দিয়ে দাঁড়িয়ে বললেন- তুমি কিভাবে ভবিষ্যদ্বাণী দিলে- ১৫ সপ্তাহও এরশাদ ক্ষমতায় থাকবে না। আর সেটাই হল! তখন মনে মনে হেসে বললাম, মনের জোরে বলেছিলাম। ড. কামাল বলেন, বাঙালিদের মধ্যে একটা ব্যাপার আছে। অন্যায় যখন সহ্যসীমা ছাড়িয়ে যায় তখন আমরা দাঁড়িয়ে যাই যে, আর মেনে নেয়া যায় না। পরিবর্তন আনতে হবে। এটা একবার না। বার বার আমরা প্রমাণ করেছি। আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়েছি বলে পেরেছি। সেটা সেই আশির দশকেও পেরেছি। তার আগেও পেরেছি। এখনো পারার মতো সেই অবস্থা আছে। আমরা যদি সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে চেষ্টা করি তাহলে হবে। একবার নয় বহুবার পরিবর্তন হয়েছে। ইনশাআল্লাহ, আবার হবে এবং দ্রুতই হবে। তিনি বলেন, কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া হবে- এই নামটা বলার দরকার নেই। কিসের কামাল হোসেনের নেতৃত্ব। আপনি নিজেই একটা নেতৃত্ব। আপনারা সবাই একজন নেতা। নামটা বলার অর্থ কি? আমি মরে গেলে কি তাহলে ঐক্য হবে না। তখন কি সবাই পরাধীন থাকবেন? আমি আপনাদের সহকর্মী হিসেবে যতদিন জীবিত আছি আপনাদের সঙ্গে থাকব। না থাকলে আপনাদেরই জাতীয় ঐক্য করতে হবে।
 
তিনি বলেন, একক নেতা খোঁজা খুব ভুল জিনিস। এটা থেকে মুক্ত হতে হবে। আজকে আমি সুযোগ পেয়েছি, এটা ভেঙে বলব। সবারই নেতৃত্ব দেয়ার ক্ষমতা আছে। কারো বেশি কারো কম। কিন্তু সকলের মধ্যেই উদ্যোক্তা হয়ে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা আছে। দেশ তো আমাদের সকলের। বাংলাদেশ কোন ব্যক্তির না, গোষ্ঠির না; কোন পরিবারেরও না। এই কথাটা আমাদের সকলের অন্তর থেকে বিশ্বাস করতে হবে। এটা বিশ্বাস করেছিলাম বলে আমরা স্বাধীনতা যুদ্ধ করেছি। এটা বিশ্বাস করেছিলাম বলে কতো দুর্ঘটনা ঘটলো। বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ড পর্যন্ত ঘটলো। হত্যাকারীদের কি আমরা হ্যান্ডশেক করে ছেড়ে দিয়েছি? না। তাদের বিচার করেছি। এছাড়া, ২০০৫ সালে আমরা জাতীয় ঐক্য করে দেখিয়েছি। আবার ২০০৫ সালের মতো ঐক্য করা সম্ভব। গণফোরাম সভাপতি বলেন, আপনারা সবাই দেশের মালিক। মালিক হিসেবে নিজেকে মূল্যায়ন করেন। নিজে নিজের জায়গা থেকে কে-কি অবদান রাখতে পারবেন সেটা ভাবেন। উদ্যোগ নেন। আশেপাশে সমমনা যাদের পান তাদের বলেন, দেশের পরিবর্তন আনা, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা ও যারা, উল্টো পথে আছে তাদের থেকে দেশকে মুক্ত করতে হবে। এভাবে যদি আমরা মুভ করি, তাহলে আমি মনে করি- বাংলাদেশের মতো আর কোন দেশ পাবেন না, যেখানে এরকম সাড়া পাওয়া যায়।


ড. কামাল বলেন, বঙ্গবন্ধু যখন জেলে আটকা পড়লেন তখন কি জনগণ বসে ছিল যে- উনি জেল থেকে বের হোক তারপর আমরা তার নেতৃত্বে যুদ্ধ করব। বঙ্গবন্ধুরও নির্দেশ ছিল- তোমাদের যার যা কিছু আছে তা নিয়ে যুদ্ধে নেমে পড়ো। ওই কথাটা সবাই রক্ষা করেছে। প্রবীণ এ নেতা বলেন, কয়েকদিন আগে স্কুলের দুইটা ছেলে-মেয়ে মারা যাওয়ার পর কিভাবে ছেলে-মেয়েরা নেমে গেল। ওরা কি বলেছিল অমুকের নেতৃত্বের জন্য আমরা অপেক্ষা করছি? উনি এসে নেতৃত্ব দিলে আমরা রাস্তা ঠিক করবো। তা করেনি। সবাই নেমে গিয়েছে। তিনি বলেন, এখনে কোনো শক্তি নেই যে, আমাদের এতো কোটি বাঙালীকে মেরে পরাধিন রাখবে। আমাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত রাখবে। এই শক্তি পৃথিবীতেও কোথাও নেই। আমাদের দেশে তো নেই-ই। জনগণকে মেরে কোন লাভ হবে না। এই দেশ আমাদের। তাই আমাদের দেশকে গড়ার জন্য কারো অনুমতি লাগবে না।
 
তিনি বলেন, আমরা ১৯৪৭ সাল থেকে লড়াই করছি। আইয়ুব খান বলেছিল আমরা অস্ত্রের ভাষায় জবাব দেব। আজকে কোথায় অস্ত্র, আর কোথায় আইয়ুব খান? এদেশের মানুষ ভাষা আন্দোলন করেছে। বলা হল বাংলা রাষ্ট্রভাষা হবে না। কয়েকজন ছেলে বললো হবে না মানে? বাংলাই তো রাষ্ট্র ভাষা হবে। তারপর কয়েকজনকে জীবন দিতে হল। আর পাকিস্তান থাকতেই বাংলা ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি দিতে হল।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীসহ আলোচনা সভায় ছিলেন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব আ ব ম মোস্তফা আমিন, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য মিলু চৌধুরী, হাবিবুর রহমান, যুব ঐক্যের আহ্বায়ক মুহাম্মদ হানিফ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সম্পর্কিত পোস্ট

আমাদের ফেইসবুক

রাশিফল

  • sagittarius

    মেষ

  • sagittarius

    বৃষ

  • sagittarius

    মিথুন

  • sagittarius

    কর্কট

  • sagittarius

    সিংহ

  • sagittarius

    কন্যা

  • sagittarius

    তুলা

  • sagittarius

    বৃশ্চিক

  • sagittarius

    মকর

  • sagittarius

    কুম্ভ

  • sagittarius

    মীন

  • sagittarius

    ধনু

  • মেষ (২১ জানুয়ারী-২৮ ফ্রেরুয়ারী)

    ব্যক্তিগত যোগাযোগ সাফল্যের দিগন্তে পৌঁছে দিতে পারে। দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে পারে। প্রাণের মানুষ প্রাণের পরে পদাঘাত করতে পারে, সতর্ক থাকুন।আপনি সব ব্যথা সয়ে নিতে পারেন এটাও পারবেন।

  • বৃষ (২১ এপ্রিল-২১ মে)

    এসপ্তাহে হাতে যখন বেশ কিছু টাকা পয়সা আসবে তখন টাকাটা একটু কাজে লাগাবার চেষ্টা করুন। অতিথি, বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে মিলন ঘটবে। পরিবারের কেউ অসুস্থ হতে পারে।  মনের লেনাদেনা খারপ যাবেনা। 

  • মিথুন (২২ মে-২১ জুন)

    এসপ্তাহে আপনার দেহ মনের খবর ভাল। মনন চর্চায় নতুন উৎকর্ষে পৌঁছোবেন।

    পরিবার পরিজনের খোঁজ খবর রাখুন। সপ্তাহ জুড়ে ভাও যাবে সময়। 

     

     

  • কর্কট (২২ জুন-২২ জুলাই)

     

    খরচাটা একটু কমান। পূর্বের কোনো কর্মের ফল ভোগ করতে হতে পারে।। স্বল্প দূরত্বে ভ্রমণ হতে পারে। ছোট ভাইবোনের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো যাবে। প্রয়োজনে তাদের সমর্থন ও সহযোগিতা পাবেন।

  • সিংহ (২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট)

     

    এসপ্তাহে টাকা পয়সা প্রাপ্তি আপনাকে উৎফুল্ল রাখবে। পরিবার বন্দু-বান্ধব উপকারে এগিয়ে আসবে। সাবধানে চলাচল করুন। একটু অসাবধানতার কারণে দুর্ঘটনায় পতিত হতে পারেন। 

  • কন্যা (২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর)

    নতুন কাজে যুক্ত হতে পারেন। পেশাগত দিক ভালো যাবে। কর্মক্ষেত্রে সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধি পাবে। সামাজিক অগ্রগতি অব্যাহত থাকবে। আয় উপার্জন বৃদ্ধির যোগ রয়েছে। 

  • তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর)

    ধর্ম কর্মে মন নিবেশ হবে। ভাগ্যোন্নয়ণে প্রবীণ কারও দিকনির্দেশনা লাভ করতে পারেন। কর্মক্ষত্র থাকবে আপনার পক্ষে। বুঝে শুনে চললে ব্যবসা ভাল যাবে। 

  • বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর)

    কাজের চাপ বাড়বে। কাজ ফেলে না রেখে রুটিন অনুসারে করার চেষ্টা করুন।মানসিক চাপ পাত্তা দেবেন না। নিজেকে সংযত রাখুন, অন্যথায় সামাজিক বদনামের শিকার হতে পারেন। আনন্দময় সময় কাটানোরও সুযোগ পেতে পারেন।

  • মকর (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি)

    শরীর খুব একটা ভালো নাও যেতে পারে। আহারে বিহারে সাবধানতা অবলম্বন করুন। কোনো ভুল সিদ্ধান্তের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা রয়েছে। কর্মক্ষেত্রে দায় দায়িত্ব বাড়বে, বিতর্ক এড়িয়ে চলুন। 

  • কুম্ভ (২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

    দূরদর্শী চিন্তাভাবনা আপনাকে সতেজ ও প্রাণবন্ত রাখবে। গবেষণামূলক কর্মকাণ্ডের জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।  সাময়িকভাবে শরীর কম ভালো যেতে পারে। 

  • মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

    আজ আপনার সেই ইচ্ছেটা  পূর্ণ হতে পারে। প্রেম ও দাম্পত্য বিষয়ে বোঝাপড়া সহজ হবে। কেউ কেউ স্থাবর সম্পত্তিতে বিনিয়োগ করতে পারেন।  ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে।

  • ধনু (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর)

    দাম্পত্য সম্পর্ক মোটামুটি ভালো যাবে। পারিবারিক সুখশান্তি বজায় থাকবে। কোনো বিষয়ে চুক্তি হতে পারে। কোনো ধরনের প্রতিযোগীতার সম্মুখীন হতে পারেন। বিশেষ কোনো দক্ষতার জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।

পাঠক মতামত

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকারের কাছে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি মামাবাড়ির আবদার। তার এ বক্তব্যের সঙ্গে আপনি কি একমত?
ভোট দিয়েছেন জন
হ্যাঁ
না
মন্তব্য নেই