চলনবিলে আর দোলে না কাশফুল!

Sohag Sheikh ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ মুক্ত কলাম
img

জাকির সেলিমঃ শুভ্র মেঘ আর রোদের লুকোচুরি খেলায় শরৎ আসে অনাবিল সৌন্দর্য নিয়ে। ভাদ্র -আশ্বিন অর্থাৎ ইংরেজি আগস্ট-অক্টোবর মিলে শরৎকাল। শিউলির সুগন্ধে পূর্ণতা পায় শরৎ এর বাতাস। নীল আকাশে তুলোর মতো ভেসে বেড়ায় শুভ্র মেঘ। নদীর দু’ তীর উজ্জ্বল হয়ে ওঠে সাদা কাশফুল। শিউলি, কামিনী, জুঁই ফুলের সৌরভে মৌ মৌ করে শরৎ এর প্রকৃতি। মৃদুমন্দ বাতাস ঢেউ খেলে যায় সবুজ ফসলের মাঠে। শরৎ মানেই কাশফুল, নির্মল নীল আকাশ। দিগন্তজোড়া সবুজের সমারোহ। বাংলার সবুজ-শ্যামল প্রকৃতিতে শরতের আগমন মুগ্ধ করে আমাদের। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বলেছেন, ‘আজি ধানের ক্ষেত্রে রৌদ্র ছায়ার লুকোচুরি খেলা নীল -আকাশে কে ভাসালো সাদা মেঘের ভেলা।’ এভাবেই আমাদের সামনে শরতের সৌন্দর্য উপস্থিত হয় এক ভিন্ন আমেজ। কবিগুরুর মতোই শরতের অপরূপ রূপে মুগ্ধ হয় বাংলার সব শ্রেণির মানুষ। শরৎ এলেই চলনবিলের রূপ লাবণ্য বৃদ্ধি পায়। পর্যটকের আনাগোনায় মুখরিত হয়ে ওঠে চলনবিলের জনপদ। নদীর কূলে খালের পাড়ে কাশফুলের ছড়াছড়ি পর্যটকদের মুগ্ধ করে। শরৎ নিয়ে কবিতা, গান, গল্পের কোন কমতি নেই। সাহিত্যে পরতে পরতে এসেছে শরতের কাশফুল। ভালোবাসা বিনিময়ে কাশফুলের ভূমিকাও কম নয়। এক সময় চলনবিলের নদীর কূলে, বিলজুড়ে, খালের পাড়ে কাশফুলের ছড়াছড়ি ছিল। এগুলো শুধু চোখেই পড়তো না, মনও কেড়ে নিতো নিমিষেই। কাশফুলের শুভ্রতায় বিমোহিত হয়ে কবিরা শরৎ নিয়ে নিজেদের আবেগকে তুলে ধরেছেন সাহিত্য পাতায়। তবে দুঃখজনক হলেও সত্য যে, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবে হারিয়ে যাচ্ছে চলনবিলের তীরে প্রাকৃতিকভাবে বেড়ে ওঠা কাঁশবন। কলকারখানা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান,অপরিকল্পীত বাসস্থান নির্মাণ, জমিতে রাসায়নিক সার ব্যবহার ইত্যাদি কারণেও ধ্বংস হচ্ছে কাশবন। স্মৃতির আয়নায় ভেসে উঠলেও বাস্তবে আর চোখে পড়ে না সেই থোকা থোকা কাশফুলের ঝোপ। এখন শুধু গান, কবিতার মাধ্যমেই সবাইকে শরতকাল উপভোগ করতে হয়। এখন যেন গানে-কবিতায়ই শরতের সমস্ত সৌন্দর্য ধরা পড়ে। অথচ মানস পটে ভেসে ওঠে, নীল আকাশের মাঝে ভেসে বেড়ানো খণ্ড খণ্ড সাদা মেঘের ভেলা। শরতকাল প্রকৃতিকে সুন্দর করে সাজিয়ে দেয়। বর্ষার পরে গাছগুলো সজীব হয়ে ওঠে। তুলোর মতো মেঘগুলো উড়ে উড়ে ঘুরে বেড়ায় আকাশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে। শরৎ মানেই নদীর তীরে কাশফুলের মাথা দোলানো পাগড়ি। শরৎ মানেই গাছে গাছে হাসনেহেনা জুঁই চামেলীর হাস্যোজ্জল মুখ। শরৎ মানেই বিলে বিলে ফুটে থাকা শাপলা শালুকের শুভ্র কানন। শরৎ মানেই গাছে পাকা পাকা তাল, সুমিষ্ট তালের পিঠা। শরৎ মানেই ক্ষেতে ক্ষেতে আমন ধানের দোল খেলা। সময়ের বিবর্তনে চলনবিল থেকে নিরব অভিমানে ক্রমান্বয়ে হারিয়ে যাচ্ছে কাশফুল। আমরা প্রকৃতির কাছ থেকে শুধু চাই। প্রকৃতিকে কিছুই দিতে চাই না। প্রকৃতিকে টিকিয়ে রাখার জন্য কিছুই করি না। মানুষ নিজের প্রয়োজনে কাশবনগুলো ধ্বংস করছে। আমরা কিছুই বলছি না। তাই তো মনে প্রশ্ন জাগে- এখন এই শরতে কোথায় পাবো কাশফুল ?

সম্পর্কিত পোস্ট

img
চলনবিলে আর দোলে . . . .
২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
img
জাতীয় শোক দিবস: . . . .
১৫ আগস্ট, ২০১৮

আমাদের ফেইসবুক

রাশিফল

  • sagittarius

    মেষ

  • sagittarius

    বৃষ

  • sagittarius

    মিথুন

  • sagittarius

    কর্কট

  • sagittarius

    সিংহ

  • sagittarius

    কন্যা

  • sagittarius

    তুলা

  • sagittarius

    বৃশ্চিক

  • sagittarius

    মকর

  • sagittarius

    কুম্ভ

  • sagittarius

    মীন

  • sagittarius

    ধনু

  • মেষ (২১ জানুয়ারী-২৮ ফ্রেরুয়ারী)

    ব্যক্তিগত যোগাযোগ সাফল্যের দিগন্তে পৌঁছে দিতে পারে। দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে পারে। প্রাণের মানুষ প্রাণের পরে পদাঘাত করতে পারে, সতর্ক থাকুন।আপনি সব ব্যথা সয়ে নিতে পারেন এটাও পারবেন।

  • বৃষ (২১ এপ্রিল-২১ মে)

    এসপ্তাহে হাতে যখন বেশ কিছু টাকা পয়সা আসবে তখন টাকাটা একটু কাজে লাগাবার চেষ্টা করুন। অতিথি, বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে মিলন ঘটবে। পরিবারের কেউ অসুস্থ হতে পারে।  মনের লেনাদেনা খারপ যাবেনা। 

  • মিথুন (২২ মে-২১ জুন)

    এসপ্তাহে আপনার দেহ মনের খবর ভাল। মনন চর্চায় নতুন উৎকর্ষে পৌঁছোবেন।

    পরিবার পরিজনের খোঁজ খবর রাখুন। সপ্তাহ জুড়ে ভাও যাবে সময়। 

     

     

  • কর্কট (২২ জুন-২২ জুলাই)

     

    খরচাটা একটু কমান। পূর্বের কোনো কর্মের ফল ভোগ করতে হতে পারে।। স্বল্প দূরত্বে ভ্রমণ হতে পারে। ছোট ভাইবোনের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো যাবে। প্রয়োজনে তাদের সমর্থন ও সহযোগিতা পাবেন।

  • সিংহ (২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট)

     

    এসপ্তাহে টাকা পয়সা প্রাপ্তি আপনাকে উৎফুল্ল রাখবে। পরিবার বন্দু-বান্ধব উপকারে এগিয়ে আসবে। সাবধানে চলাচল করুন। একটু অসাবধানতার কারণে দুর্ঘটনায় পতিত হতে পারেন। 

  • কন্যা (২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর)

    নতুন কাজে যুক্ত হতে পারেন। পেশাগত দিক ভালো যাবে। কর্মক্ষেত্রে সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধি পাবে। সামাজিক অগ্রগতি অব্যাহত থাকবে। আয় উপার্জন বৃদ্ধির যোগ রয়েছে। 

  • তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর)

    ধর্ম কর্মে মন নিবেশ হবে। ভাগ্যোন্নয়ণে প্রবীণ কারও দিকনির্দেশনা লাভ করতে পারেন। কর্মক্ষত্র থাকবে আপনার পক্ষে। বুঝে শুনে চললে ব্যবসা ভাল যাবে। 

  • বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর)

    কাজের চাপ বাড়বে। কাজ ফেলে না রেখে রুটিন অনুসারে করার চেষ্টা করুন।মানসিক চাপ পাত্তা দেবেন না। নিজেকে সংযত রাখুন, অন্যথায় সামাজিক বদনামের শিকার হতে পারেন। আনন্দময় সময় কাটানোরও সুযোগ পেতে পারেন।

  • মকর (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি)

    শরীর খুব একটা ভালো নাও যেতে পারে। আহারে বিহারে সাবধানতা অবলম্বন করুন। কোনো ভুল সিদ্ধান্তের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা রয়েছে। কর্মক্ষেত্রে দায় দায়িত্ব বাড়বে, বিতর্ক এড়িয়ে চলুন। 

  • কুম্ভ (২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

    দূরদর্শী চিন্তাভাবনা আপনাকে সতেজ ও প্রাণবন্ত রাখবে। গবেষণামূলক কর্মকাণ্ডের জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।  সাময়িকভাবে শরীর কম ভালো যেতে পারে। 

  • মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

    আজ আপনার সেই ইচ্ছেটা  পূর্ণ হতে পারে। প্রেম ও দাম্পত্য বিষয়ে বোঝাপড়া সহজ হবে। কেউ কেউ স্থাবর সম্পত্তিতে বিনিয়োগ করতে পারেন।  ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে।

  • ধনু (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর)

    দাম্পত্য সম্পর্ক মোটামুটি ভালো যাবে। পারিবারিক সুখশান্তি বজায় থাকবে। কোনো বিষয়ে চুক্তি হতে পারে। কোনো ধরনের প্রতিযোগীতার সম্মুখীন হতে পারেন। বিশেষ কোনো দক্ষতার জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।

পাঠক মতামত

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকারের কাছে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি মামাবাড়ির আবদার। তার এ বক্তব্যের সঙ্গে আপনি কি একমত?
ভোট দিয়েছেন জন
হ্যাঁ
না
মন্তব্য নেই