গজাইল অনার্স কলেজের শিক্ষা সফর ৭ ফেব্রুয়ারী

Sohag Sheikh ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯ বিনোদন
img

 বিসমিল্লাহির রহমানির রাহিম
গজাইল অনার্স কলেজ              
উল্লাপাড়া,সিরাজগঞ্জ
শিক্ষা সফর- ২০১৯ ইং
” চল যাই সমুদ্র স্নানে”
                                  তারিখ :- ৭ ফেব্রুয়ারী-১৯ ইং  রোজ :- বৃহস্পতিবার।

* শিক্ষা সফর সময় সূচি *

যাত্রা শুরু - ৭ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার  সন্ধ্যে ৬ঃ৩০ মিঃ , দবিরগঞ্জ থেকে।
*  ০৮ ফেব্রুয়ারী   রোজঃ- শুক্রবার *
অবস্থান- কক্সবাজার , এখানে নাস্তা শেষে কক্সবাজারের দর্শণীয় স্থানসমুহ পরিদর্শন।
কক্সবাজারঃ- বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত একটি পর্যটন শহর। কক্সবাজার তার নৈসর্গিক সৌন্দর্যের জন্য বিখ্যাত। এখানে রয়েছে বিশ্বের দীর্ঘতম অবিচ্ছিন্ন প্রাকৃতিক বালুময় সমুদ্র সৈকত।

  এখানে যা দেখবো-
লাবণী সী বীচ,সুগন্ধ্যা সী বিচ, ঝিনুক মার্কেট,বার্মিজ মার্কেট, মহেশখালী দ্বীপ,হিমছড়ি ঝর্ণা স্পট, ইনানী সি বিচ।
বেলা ঃ ২.৩০ মিনিটে দুপুরের খাবার সম্পন্ন করে মহেশখালী দ্বীপের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু।
মহেশখালী দ্বীপ ঃ কক্সবাজারের কস্তুরী ঘাট/ ৬নং ফেরীঘাট থেকে স্পীড বোর্ডে/ ইঞ্জিন চালিত নেীকায় চড়ে ২০/৩০ মিনিটে মহেশখালী দ্বীপে পৌঁছে যাব।

 এখানে যা দেখবো-
*আদিনাথ মন্দির * আদিনাথ জেটি * স্বর্ণমন্দির * জেলে পাড়া* চরপাড়া বীচ।
ফিরে এসে কক্সবাজারের সি বীচ পর্যবেক্ষণ ।
বিকেল ৫.০০ টায় নিজস্ব বাবুর্চি দ্বারা রান্না করা খাবার পরিবেশন করা হবে। রাত্রে কক্সবাজার হোটেলে রাত্রী যাপন।
* ০৯ ফেব্রুয়ারী   রোজঃ- শনিবার *
ভোর ৫ টায় সকালের নাস্তা খেয়ে সকাল ঃ ৬ টায় সেন্টমার্টিনের উদ্দেশ্যে নিজস্ব বাসযোগে রওনা।
টেকনাফ ঃ বাংলাদেশের সর্বদক্ষিণ-পূর্ব কোনায় অবস্থিত। এখানে বহু পর্যটক আকর্ষণীয় স্থান রয়েছে।
*এখানে যা দেখবো- টেকনাফের সমুদ্র সৈকত,মাথিনের কূপ,বার্মিজ মার্কেট,সেন্টমার্টিন যাবার সময় নাফ নদী ও মিয়ানমার বর্ডার।
টেকনাফ পৌঁছানোর পর লঞ্চ/জাহাজযোগে সেন্টমার্টিন দ্বীপে রওনা।
সেন্টমার্টিন দ্বীপঃ এটি দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ। জিঞ্জিরা,দক্ষিণপাড়া,গলাছিরা ও চেরাদিয়া এই চারটি দ্বীপ নিয়ে গঠিত।
এখানে যা দেখবো- এখানকার মুল আকর্ষণ সামদ্রিক কাঁকড়া,প্রবাল,নারিকেল গাছ,ব্যতিক্রমধর্মী নৌকা, কথা সাহিত্যিক হুমায়ন আহমেদের বাড়ি ’ সমুদ্র বিলাস’। সর্বোপরি এখানকার সৌন্দর্য আপনাদের বিমোহিত করবেই।
সেন্টমার্টিন হোটেলে সুস্বাদু রুপচান্দা দিয়ে দুপুরের বিশেষ খাবার পরিবেশন করা হবে।

নোটঃ- অবশ্যই বেলা ৩.০০ টার আগেই লঞ্চ/জাহাজে উঠতেই হবে।
সেনটমার্টিন দ্বীপ থেকে ফিরে ১ঘন্টা ৩০ মিনিট কেনাকাটার জন্য সুযোগ থাকবে। টেকনাফ থেকে ফিরে রাত্রের খাবার খেয়ে কক্সবাজারে হোটেলে রাত্রীযাপন।
অথবা
দর্শণীয় স্থান-  হিমছড়ি ঝর্ণা স্পট ও ইনানী সি বিচ পরিদর্শন। (হিমছড়িতে ক্রিসমাস ট্রি ও ঝর্ণা স্পট রয়েছে)
ইনানী সি বীচ : সৈকত জুড়ে প্রবাল পাথরের সমারোহ। সৈকতে যাওয়ার পথে সাগর বেষ্টিত সমুদ্রের পথে সারি সারি নারিকেল গাছ,শুপারী গাছ,মাছ ধরার নৌকা পরিলক্ষিত হবে।

* ১০ ফেব্রুয়ারী   রোজঃ- রবিবার *
ভোর : ৫ টায় নিজস্ব বাবুর্চিও রান্না করা খাবার খেয়ে বান্দরবানের দিকে রওনা।
বান্দরবান :- প্রাকৃতিক সৌন্দর্যেও অবারিত সবুজের সমারোহ এবং পাহাড়ী কন্যাখ্যাত বান্দরবান।
*এখানে যা দেখবো- চিম্বুক পাহাড়,নীলগিরি,নীলাচল ও মেঘলা।
সেখানে পৌঁছানোর পর চান্দেও গাড়ীতে চড়ে চিম্বুক পাহাড় ও নীলগিরি দেখে ফিওে এসে নীলাচল ও মেঘনা দেখবো।
সন্ধ্যে ৫.৩০ মিনিটে নিজস্ব বাবুচি দ্বার রান্না করা খাবার খেয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিব।

সার্বিক তত্বাবধানে : অধ্যক্ষ মনজিলুর রহমান, উপাধ্যক্ষ রাকিবুল হাসান।

প্রধান সমন্বয়ক,শিক্ষা সফর বাস্তবায়ন কমিটি : জাকির সেলিম, সহ:অধ্যাপক

সমন্বয়ক সদস্য ,শিক্ষা সফর বাস্তবায়ন কমিটি : ছাইদুর রহমান ও রুহুল আমিন গজাইল অনার্স কলেজ।

 

সম্পর্কিত পোস্ট

img
গজাইল অনার্স কলেজের . . . .
৫ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯
img
. . . .
৪ অক্টোবর, ২০১৮

আমাদের ফেইসবুক

রাশিফল

  • sagittarius

    মেষ

  • sagittarius

    বৃষ

  • sagittarius

    মিথুন

  • sagittarius

    কর্কট

  • sagittarius

    সিংহ

  • sagittarius

    কন্যা

  • sagittarius

    তুলা

  • sagittarius

    বৃশ্চিক

  • sagittarius

    মকর

  • sagittarius

    কুম্ভ

  • sagittarius

    মীন

  • sagittarius

    ধনু

  • মেষ (২১ জানুয়ারী-২৮ ফ্রেরুয়ারী)

    ব্যক্তিগত যোগাযোগ সাফল্যের দিগন্তে পৌঁছে দিতে পারে। দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে পারে। প্রাণের মানুষ প্রাণের পরে পদাঘাত করতে পারে, সতর্ক থাকুন।আপনি সব ব্যথা সয়ে নিতে পারেন এটাও পারবেন।

  • বৃষ (২১ এপ্রিল-২১ মে)

    এসপ্তাহে হাতে যখন বেশ কিছু টাকা পয়সা আসবে তখন টাকাটা একটু কাজে লাগাবার চেষ্টা করুন। অতিথি, বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে মিলন ঘটবে। পরিবারের কেউ অসুস্থ হতে পারে।  মনের লেনাদেনা খারপ যাবেনা। 

  • মিথুন (২২ মে-২১ জুন)

    এসপ্তাহে আপনার দেহ মনের খবর ভাল। মনন চর্চায় নতুন উৎকর্ষে পৌঁছোবেন।

    পরিবার পরিজনের খোঁজ খবর রাখুন। সপ্তাহ জুড়ে ভাও যাবে সময়। 

     

     

  • কর্কট (২২ জুন-২২ জুলাই)

     

    খরচাটা একটু কমান। পূর্বের কোনো কর্মের ফল ভোগ করতে হতে পারে।। স্বল্প দূরত্বে ভ্রমণ হতে পারে। ছোট ভাইবোনের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো যাবে। প্রয়োজনে তাদের সমর্থন ও সহযোগিতা পাবেন।

  • সিংহ (২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট)

     

    এসপ্তাহে টাকা পয়সা প্রাপ্তি আপনাকে উৎফুল্ল রাখবে। পরিবার বন্দু-বান্ধব উপকারে এগিয়ে আসবে। সাবধানে চলাচল করুন। একটু অসাবধানতার কারণে দুর্ঘটনায় পতিত হতে পারেন। 

  • কন্যা (২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর)

    নতুন কাজে যুক্ত হতে পারেন। পেশাগত দিক ভালো যাবে। কর্মক্ষেত্রে সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধি পাবে। সামাজিক অগ্রগতি অব্যাহত থাকবে। আয় উপার্জন বৃদ্ধির যোগ রয়েছে। 

  • তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর)

    ধর্ম কর্মে মন নিবেশ হবে। ভাগ্যোন্নয়ণে প্রবীণ কারও দিকনির্দেশনা লাভ করতে পারেন। কর্মক্ষত্র থাকবে আপনার পক্ষে। বুঝে শুনে চললে ব্যবসা ভাল যাবে। 

  • বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর)

    কাজের চাপ বাড়বে। কাজ ফেলে না রেখে রুটিন অনুসারে করার চেষ্টা করুন।মানসিক চাপ পাত্তা দেবেন না। নিজেকে সংযত রাখুন, অন্যথায় সামাজিক বদনামের শিকার হতে পারেন। আনন্দময় সময় কাটানোরও সুযোগ পেতে পারেন।

  • মকর (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি)

    শরীর খুব একটা ভালো নাও যেতে পারে। আহারে বিহারে সাবধানতা অবলম্বন করুন। কোনো ভুল সিদ্ধান্তের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা রয়েছে। কর্মক্ষেত্রে দায় দায়িত্ব বাড়বে, বিতর্ক এড়িয়ে চলুন। 

  • কুম্ভ (২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

    দূরদর্শী চিন্তাভাবনা আপনাকে সতেজ ও প্রাণবন্ত রাখবে। গবেষণামূলক কর্মকাণ্ডের জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।  সাময়িকভাবে শরীর কম ভালো যেতে পারে। 

  • মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

    আজ আপনার সেই ইচ্ছেটা  পূর্ণ হতে পারে। প্রেম ও দাম্পত্য বিষয়ে বোঝাপড়া সহজ হবে। কেউ কেউ স্থাবর সম্পত্তিতে বিনিয়োগ করতে পারেন।  ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে।

  • ধনু (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর)

    দাম্পত্য সম্পর্ক মোটামুটি ভালো যাবে। পারিবারিক সুখশান্তি বজায় থাকবে। কোনো বিষয়ে চুক্তি হতে পারে। কোনো ধরনের প্রতিযোগীতার সম্মুখীন হতে পারেন। বিশেষ কোনো দক্ষতার জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।

পাঠক মতামত

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সরকারের কাছে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি মামাবাড়ির আবদার। তার এ বক্তব্যের সঙ্গে আপনি কি একমত?
ভোট দিয়েছেন জন
হ্যাঁ
না
মন্তব্য নেই