ঝালকাঠিতে সুগন্ধা-বিষখালী নদীর বালু উত্তোলনে সরকার হারাচ্ছে শত কোটি টাকার রাজস্ব !

Sohag Sheikh ২২ ডিসেম্বর, ২০১৯ দেশের খবর
img


মো:নজরুল ইসলাম,ঝালকাঠি প্রতিনিধি:: ঝালকাঠির বিষখালী ও নলছিটির সুগন্ধা নদীর দু’পাড়ে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের মহা উৎসব চলছে। দীর্ঘ ৮/১০ বছর ধরে একাধারে চক্রটি বালু উত্তোলন করে আসলেও প্রশাসন মাঝে মাঝে লোকদেখানো দু’একটি অভিযান চালালেও তা কোন কাজে আসেনি। প্রশাসন অভিযান চালালে কিছুদিন বন্ধ থাকার পর পুনরায় চক্রটি বালু উত্তোলন শুরু করে দেয়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ১০/১২ টি বল গেট দিয়ে কালিজিরার সুগন্ধা নদীর গড়িপাশা ও রায়াপুরের দু’পাড়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে বালু ব্যবসায়ী একটি চক্র। চক্রটি প্রতিদিন গড়ে ১ লক্ষ ঘন ফুট বালু উত্তোলন করে। কোন ইজারা না নিয়ে চক্রটির বালু উত্তোলনে সরকার প্রতিদিন প্রায় ৫০ হাজার টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে। এতে মাসে সরকারের রাজস্ব হারানোর পরিমান দাড়ায় প্রায় ২ কোটি টাকা। আর বছরে ওই টাকার পরিমান দাড়ায় প্রায় ২০ কোটি টাকার মত। বছরের পর বছর অবৈধভাবে সরকার যেমন শত কোটি টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে অপরদিকে নদীর দু’পাড়ে ভাঙ্গণ দেখা দিচ্ছে। এতে করে নদীর দু’পাড়ে মানুষের জন জীবন ক্রমেই হুমকির মুখে পতিত হচ্ছে। চক্রটির হুমকি-ধামকিতে নদী পাড়ের মানুষেরা মুখ খুলতেও পারছেনা। এতে করে তাদের মাঝে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।

অপরদিকে ঝালকাঠির বিষখালী নদীতে দীর্ঘ  একযুগ ধরে একাধারে চক্রটি বালু উত্তোলন করে আসছে। প্রতিদিন ১৫/২০ টি বল গেট দিয়ে দুই লক্ষ ঘন ফুট বালু অবৈধভাবে উত্তোলন করে সরকারের কোটি কোটি টাকা রাজস্ব হারাচ্ছে। পাশাপাশি হুমকির মুখে নদীভাঙ্গন এলকার মানুষ শত শত মানুষ। নদী গর্ভে বিলিন হচ্ছে ফসলি জমি।

এছাড়া বছরের পর বছর বালু উত্তোলনে ধীরে ধীরে হুমকি মুখে পড়ছে শহীদ আঃ রব সেরনিয়াবাত সেতু ও কালিজিরা ব্রীজ। সরকারের কোটি কোটি টাকার রাজস্ব হারানো, নদী পাড়ের মানুষের জীবন হুমকির মুখে পড়া ও আঃ রব সেরনিয়াবাত সেতু এবং কালিজিরা ব্রীজ হুমকির মুখে এসব মিলিয়েও প্রশাসনের যেন কোন দায় নেই। কিছু দিন পর পর লোক দেখানো দু’একটি অভিযান চালিয়ে যেন প্রশাসন দায় এড়িয়ে যাচ্ছে।

তবে প্রশাসনে শক্ত ও দৃশ্যমান কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় চক্রটিকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন থামানো যাচ্ছে না বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। জনপ্রতিনিধিসহ এলাকাবাসী কেউ কেউ মনে করছেন প্রশাসনকে একপ্রকার ম্যানেজ প্রক্রিয়া করেই দিনের পর দিন বালু উত্তোলন করে আসছে চক্রটি। নয়তো প্রশাসনের অভিযানেই চক্রটির বালু উত্তোলন থেমে যেত। বালু উত্তোলনের বিষয়টির সংবাদ সংগ্রহে ওই এলাকায় সরেজমিনে গেলে চক্রটির পূর্বের দেয়া হুমকি-ধামকির ভয়ে প্রকাশ্যে কেউ মুখ খুলতে নারাজ।

এছাড়া আরো অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় কিছু জনপ্রতিনিধি, ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় নেতাসহ বেশ কিছু কথিত সাংবাদিকদেরও ম্যানেজ করে ফেলছে ওই চক্রটি। বালু উত্তোলনে ক্ষতিগ্রস্থ নদী পাড়ের মানুষদের অভিযোগ তারা অভিযোগ জানালেও কোন প্রতিকার পাইনি। বরং ক্ষতিগ্রস্থ মানুষগুলো প্রভাবশালীদের চাপের মুখে রয়েছে। এছাড়া প্রায় সময় ওই বালু উত্তোলনকারীদের মাসোয়ারা নিয়ে এলাকায় সংঘাতের ঘটনাও ঘটে।

অপরদিকে ককেজন বালু ব্যবসায়ীর দাবী বালু উত্তোলনে ঝালকাঠী জেলা প্রশাসকেরর মৌখিক অনুমতি রয়েছে। অনুমতি নিয়েই আমরা বালু উত্তোলন করছি।

এদিকে নলছিটির ইউএনও রুúা সিকদারের সাক্ষরিত ১ মাস মেয়াদে সুগন্ধা নদীতে বালু উত্তোলনের একটি অনুমতিপত্র রয়েছে এ প্রতিবেদকের কাছে। অনুমতিপত্রে দেখা যায় ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত বালু উত্তোলনের অনুমতি দেয়া থাকলেও এখন পর্যন্ত চলছে বালু উত্তোলন। তবে সরকারি রাস্তা মেরামতের কাজে বালু উত্তোলনের জন্য ওই অনুমতিপত্র দেখা হয়েছিল বলে জানায় একটি সূত্র।

এ সকল বিষয়ে ঝালকাঠীর জেলা প্রশাসক জোহর আলী বলেন, সুগন্ধা নদীতে বালু উত্তোলনে মৌখিক বা লিখিত অনুমতি দেয়া হয়নি। এটা হাস্যকর। সুগন্ধা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিযান চালানো হবে।

 

সম্পর্কিত পোস্ট

আমাদের ফেইসবুক

রাশিফল

  • sagittarius

    মেষ

  • sagittarius

    বৃষ

  • sagittarius

    মিথুন

  • sagittarius

    কর্কট

  • sagittarius

    সিংহ

  • sagittarius

    কন্যা

  • sagittarius

    তুলা

  • sagittarius

    বৃশ্চিক

  • sagittarius

    মকর

  • sagittarius

    কুম্ভ

  • sagittarius

    মীন

  • sagittarius

    ধনু

  • মেষ (২১ জানুয়ারী-২৮ ফ্রেরুয়ারী)

    ব্যক্তিগত যোগাযোগ সাফল্যের দিগন্তে পৌঁছে দিতে পারে। দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে পারে। প্রাণের মানুষ প্রাণের পরে পদাঘাত করতে পারে, সতর্ক থাকুন।আপনি সব ব্যথা সয়ে নিতে পারেন এটাও পারবেন।

  • বৃষ (২১ এপ্রিল-২১ মে)

    এসপ্তাহে হাতে যখন বেশ কিছু টাকা পয়সা আসবে তখন টাকাটা একটু কাজে লাগাবার চেষ্টা করুন। অতিথি, বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে মিলন ঘটবে। পরিবারের কেউ অসুস্থ হতে পারে।  মনের লেনাদেনা খারপ যাবেনা। 

  • মিথুন (২২ মে-২১ জুন)

    এসপ্তাহে আপনার দেহ মনের খবর ভাল। মনন চর্চায় নতুন উৎকর্ষে পৌঁছোবেন।

    পরিবার পরিজনের খোঁজ খবর রাখুন। সপ্তাহ জুড়ে ভাও যাবে সময়। 

     

     

  • কর্কট (২২ জুন-২২ জুলাই)

     

    খরচাটা একটু কমান। পূর্বের কোনো কর্মের ফল ভোগ করতে হতে পারে।। স্বল্প দূরত্বে ভ্রমণ হতে পারে। ছোট ভাইবোনের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো যাবে। প্রয়োজনে তাদের সমর্থন ও সহযোগিতা পাবেন।

  • সিংহ (২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট)

     

    এসপ্তাহে টাকা পয়সা প্রাপ্তি আপনাকে উৎফুল্ল রাখবে। পরিবার বন্দু-বান্ধব উপকারে এগিয়ে আসবে। সাবধানে চলাচল করুন। একটু অসাবধানতার কারণে দুর্ঘটনায় পতিত হতে পারেন। 

  • কন্যা (২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর)

    নতুন কাজে যুক্ত হতে পারেন। পেশাগত দিক ভালো যাবে। কর্মক্ষেত্রে সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধি পাবে। সামাজিক অগ্রগতি অব্যাহত থাকবে। আয় উপার্জন বৃদ্ধির যোগ রয়েছে। 

  • তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর)

    ধর্ম কর্মে মন নিবেশ হবে। ভাগ্যোন্নয়ণে প্রবীণ কারও দিকনির্দেশনা লাভ করতে পারেন। কর্মক্ষত্র থাকবে আপনার পক্ষে। বুঝে শুনে চললে ব্যবসা ভাল যাবে। 

  • বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর)

    কাজের চাপ বাড়বে। কাজ ফেলে না রেখে রুটিন অনুসারে করার চেষ্টা করুন।মানসিক চাপ পাত্তা দেবেন না। নিজেকে সংযত রাখুন, অন্যথায় সামাজিক বদনামের শিকার হতে পারেন। আনন্দময় সময় কাটানোরও সুযোগ পেতে পারেন।

  • মকর (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি)

    শরীর খুব একটা ভালো নাও যেতে পারে। আহারে বিহারে সাবধানতা অবলম্বন করুন। কোনো ভুল সিদ্ধান্তের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা রয়েছে। কর্মক্ষেত্রে দায় দায়িত্ব বাড়বে, বিতর্ক এড়িয়ে চলুন। 

  • কুম্ভ (২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

    দূরদর্শী চিন্তাভাবনা আপনাকে সতেজ ও প্রাণবন্ত রাখবে। গবেষণামূলক কর্মকাণ্ডের জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।  সাময়িকভাবে শরীর কম ভালো যেতে পারে। 

  • মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

    আজ আপনার সেই ইচ্ছেটা  পূর্ণ হতে পারে। প্রেম ও দাম্পত্য বিষয়ে বোঝাপড়া সহজ হবে। কেউ কেউ স্থাবর সম্পত্তিতে বিনিয়োগ করতে পারেন।  ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে।

  • ধনু (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর)

    দাম্পত্য সম্পর্ক মোটামুটি ভালো যাবে। পারিবারিক সুখশান্তি বজায় থাকবে। কোনো বিষয়ে চুক্তি হতে পারে। কোনো ধরনের প্রতিযোগীতার সম্মুখীন হতে পারেন। বিশেষ কোনো দক্ষতার জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।

পাঠক মতামত

আজকের প্রশ্ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আশা প্রকাশ করে বলেছেন, করোনা মোকাবিলায় বিএনপি এখন সরকারের সহযোগী হবে। আপনিও কি তাই মনে করেন?
ভোট দিয়েছেন জন
হ্যাঁ
না
মন্তব্য নেই