বিপন্ন কি আজ মানবতা? সবাই সবার কাছে অনিরাপদ, সন্তান বা পিতা-মাতা ?

Sohag Sheikh ২৩ জানুয়ারী, ২০১৭ মুক্ত কলাম
img

বলা হয় মানুষের মস্তিস্ক যতটা সক্রিয় হয় মানুষ ততটা মানবিক গুণাবলী সম্পন্ন হয়। মানুষের কল্যাণে নিবেদিত হয়। মানুষ তার নিউরনের নাকি ১০ শতাংশের নিচে ব্যাবহার করে থাকে। পৃথিবীতে আরেকটি প্রাণী আছে যেকি না তার মস্তিস্কের ২০ শতাংশ ব্যবহার করে থাকে। তাইতো সে গভীর সমুদ্রে বিপন্ন সব প্রাণীর উপকারে এগিয়ে আসে। সভ্যতার বিবর্তনের গতি ধারায় মানুষের মস্তিস্ক ক্রমশ সক্রিয় হওয়ার কথা, মানুষ আরো বেশি মানবিক মূল্যবোধ সম্পন্ন হওয়ার কথা। অথচ সভ্যতার এই পর্যায়ে এসে মানুষ মানুষ কে হত্যা করছে তুচ্ছ কারণে। ভালবেসে ঘর বেঁধে রাত্রি যাপন করছে একই ঘরে, ঘুমের মধ্যে খুন করছে স্ত্রী স্বামীকে বা স্বামী স্ত্রীকে। মানব শিশুর সবচেয়ে নিরাপদ আশ্রয় মায়ের বুক অথচ মা নিজেই শিশুকে হত্যা করছে। আপন ঔরশজাত সন্তানকে হত্যা করছে পিতা। ৯মাস গর্ভে ধারণ করে আমানুসিক কষ্ট সহ্য করে যে মা জন্ম দিয়েছেন সন্তানকে, সেই সন্তানই খুন করছে মা কে।

পত্রিকার পাতায় প্রায় দেখতে পাওয়া যায় এমন খুনের ঘটনা। পেশাদার খুনিদের চেয়ে বেশি খুন হচ্ছে আপন জনের হাতে।

রাজশাহীতে ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৬ শনিবার রাতে সাত বছরের শিশুসন্তান শাহরিয়ার আলম কাব্যকে কুপিয়ে হত্যার পর মা তাসলিমা খাতুনের আত্মহত্যার চেষ্টা।

রাজধানী ঢাকায় পরকীয়ার বলি হয়েছেন সায়েম গ্রুপের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) মনিরুল ইসলাম। মা ও মেয়ের সঙ্গে ছিল তার অনিয়মিত সম্পর্ক। মুরসালিন তার বন্ধু শাকিল, আকাশ, আশিক এবং জুয়েলকে নিয়ে খুন করে তাকে।

১৭ সেপ্টেম্বর শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরের বারিক বিল্ডিং এলাকায় নিজের সন্তান সুমিত চৌধুরী দিয়ে কুপিয়ে মা কুমকুম চৌধুরীকে(৪২) খুন করেছেন। পরে ওই বঁটি দিয়েই গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন সুমিত।  

 

তুচ্ছ পারিবারিক দ্বন্দে চড় মারার ঘটনায় কুমিল্লায় স্ত্রী নাসিমা আক্তার ও দেড় বছরের ছেলে নাফিস হত্যা করে ঘটনায় অভিযুক্ত নাসিমার স্বামী নাজমুল হাসান।

২৯ আগস্ট ২০১৬জয়পুরহাট সদর উপজেলার কোমরগ্রামে শ্বাসরোধ করে বেনু নামে ১ গৃহ বধূকে হত্যার অভিযোগে তার স্বামী রেজাউল করিমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গত ২১ আগস্ট ২০১৬ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় শাহবাজপুর ইউনিয়নের দীঘিরপাড় গ্রামে স্বামী আহাম্মদ আলী  যৌতুকের টাকার জন্য স্ত্রী নিলুফাকে পিটিয়ে ও শ্বাসরোধে হত্যা করেন।

১৯ আগস্ট ২০১৬ বরগুনা, তালতলী উপজেলার মোয়াপাড়া গ্রামের ফরিদ হোসেনের স্ত্রী মরিয়ম বেগমকে স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন এ্যাসিড খাইয়ে হত্যা করেছে।

২০১২ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া আটটার দিকে পারিবারিক কলহের জের ধরে মুজাহিদ তার স্ত্রী দুই সন্তানের জননী নিলুফা ইয়াসমিনকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করেন। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নিলুফাকে মৃত ঘোষণা করেন।

২০১৩ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর রংপুরে নিউ জুম্মাপাড়ার মেথর কলোনির হরিজন সম্প্রদায়ের সবরুল ভাসফোরের ছেলে জয়রাম ভাসফোর তার স্ত্রী চাঁদনী রাণীকে গলা টিপে হত্যা করে।

 

রংপুরের নিউ আদর্শপাড়ার মোছাদ্দেক হোসেনের চার বছরের শিশুসন্তান রহিমুল ইসলাম রওনক গত ১ ডিসেম্বর নিখোঁজ হয়। দুই মাস পর রংপুরের মিঠাপুকুর থেকে রওনকের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নোয়াখালীর চরজব্বারের সুবর্ণচর এলাকার আনোয়ার হোসেনের মেয়ে মুন্নী আক্তার চার বছর ধরে রাজধানীর বনশ্রী এলাকায় এক বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করত। গত ২৪ জানুয়ারি পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। ঢাকার ধামরাইয়ের চৌহাট এলাকার দেলোয়ার হোসেনের ছেলে শাকিল ও আবু বকরের ছেলে ইমরান হোসেনের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ টাঙ্গাইলের মির্জাপুর থেকে।

সব নির্মমতাকে হার মানিয়েছে রাজধানীর খিলক্ষেতের নাজিমুদ্দীনের হত্যাকাণ্ড। কবুতর চুরির অভিযোগ দিয়ে গত বছরের ১২ এপ্রিল রাতে ও তার পরদিন সকালে নির্মম নির্যাতন করে হত্যা করা হয় নাজিমকে।

শিশুহত্যার আরেক ভয়াবহ দৃষ্টান্ত সিলেটের সামিউল আলম রাজন হত্যা। গত ৮ জুলাই শহরতলির কুমারগাঁও এলাকায় চুরির অপবাদ দিয়ে হত্যা করা হয়। খুলনার টুটপাড়ায় আরেক ভয়াবহ শিশুহত্যার ঘটনার শিকার হয় গ্যারেজের কর্মী রাকিব। মোটরসাইকেলে হাওয়া দেওয়ার কম্প্রেসার মেশিন দিয়ে তার পেটের ভেতরে গ্যাস ঢোকানো হয়। এতে তার পেটের ভেতরের নাড়িভুঁড়ি, মলদ্বার, মূত্রথলি ফেটে মৃত্যু হয় তার।

কেরানীগঞ্জের মুগারচর এলাকার দাদার পরিবারের হাতে অপহরণের পর খুন হয় শিশু আবদুল্লাহ।

২০১৫ সালের ২৫ আগস্ট খুলনায় ১১ মাসের কন্যা সুমাইয়াকে হত্যা করেছে মা-বাবা। রাজধানীর আদাবরে শিশু সামিউল হত্যা, সবুজবাগে রিয়া হত্যা ও পুরান ঢাকার শিশু তানহা হত্যার রক্তও লেগে আছে মা-বাবার হাতে। পরিসংখ্যান বলছে, শুধু ২০১৫ সালের প্রথম ছয় মাসেই মা-বাবার হাতে খুন হতে হয়েছে ২৭ শিশুকে। এর মধ্যে মায়ের হাতে খুন হয়েছে ১৩ শিশু এবং বাবার হাতে খুন হয়েছে ১৪ শিশু।

২০১২ সালের অক্টোবরে চট্টগ্রামের পাঁচলাইশে গৃহশিক্ষকের হাতে মায়ের সঙ্গে খুন হয় আলভী ও আবিদা, ২০১৩ সালের মে মাসের চট্টগ্রামের সিআরবিতে খুন হয় শিশু আরমান, ২০১২ সালের এপ্রিলে বগুড়ায় অপহরণের পর মুক্তিপণ নিয়েও ইটভাটায় পুড়িয়ে হত্যা করা হয় শিশু নাইমকে।  চুরির অপবাদ দিয়ে ২০১৫ সালের আগস্টে বরগুনায় হত্যা করা হয় শিশু রবিউলকে। একই বছরের ২০১৫ সালের আগস্টে ঢাকার কেরানীগঞ্জে নির্যাতন করে হত্যা করা শিশু রাব্বীকে।এমন হত্যা কাণ্ডের নজীর রয়েছে প্রচুর।

প্রেমের নামে বা প্রেমের কারণে হত্যা কাণ্ড গুলোও কি আমাদের চমকে দেয় না! প্রেমের ডাকে সাড়া না দেওয়ার ঘটনায় বিক্ষুব্ধ প্রেমিকের হাতে কুন হতে হচ্ছে।  

১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ রবিবার সকাল সোয়া নয়টার দিকে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার নবগ্রাম ঠাকুরবাড়ি এলাকায়।স্কুলে যাওয়ার পথে নিতু মণ্ডল নামের নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে মিলন মণ্ডল নামের এক যুবক।

এর আগে ওবায়দুল খান নামে বখাটের ছুরিকাঘাতে রাজধানীর কাকরাইলে উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্রী সুরাইয়া আক্তার রিশা গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। টানা চারদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর রোববার সকালে সে মারা যায়।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের মহিপুর এস এ এম উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী কনিকা বখাটে মাদকাসক্ত যুবকের উত্যক্তের বলি। সেদিন কনিকার সঙ্গে আহত হয় তার সহপাঠী তানজিলা খাতুন, মরিয়ম খাতুন ও তারিন। এছাড়া প্রেমিকার পিতার হাতে প্রেমিক স্কুল ছাত্র খুন।  

পুলিশ সদর দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০১০ সালে সারাদেশে খুন সঙ্ঘটিত হয়েছে ৩৯৮৮টি। ২০১১ সালে খুন সঙ্ঘটিত হয়েছে ৩৯৬৬টি। ২০১২ সালে খুন সঙ্ঘটিত হয়েছে ৪১৪৯টি। ২০১৩ সালের খুনের ঘটনা ঘটেছে ৪৩৯৩টি। ২০১৪ সালে খুনের ঘটনা ঘটেছে ৪৫১৫টি। ২০১৫ সালে খুনের ঘটনা ৪০৩৫টি। গত ৫ বছরের খুনের ঘটনা ক্রমবর্ধমান হলেও গত ২০১৫ সালে খুনের ঘটনা কম দেখানো হয়েছে পুলিশের পরিসংখ্যানে।

তবে কি মানুষ সভ্যতা, মেধা, মানবিকতার বিবেচনায় পিছেনের দিকে হাঁটছে? মানুষ কি ক্রমশ একা হয়ে যাচ্ছে? পরিবার, বাবা-মা, স্বামী-স্ত্রী, বন্ধু বা ভাই-বোন এই সম্পর্ক গুলোও কি এরকম ভয়ংকর অনিরাপদ হয়ে যাবে। মানুষ কি আর মানুষকে বিশ্বাস করতে পারবে না। এ যদি অধঃপাতে গমন হয় তবে এ থেকে পরিত্রাণের উপায় কি হতে পারে।

সম্পর্কিত পোস্ট

আমাদের ফেইসবুক

রাশিফল

  • sagittarius

    মেষ

  • sagittarius

    বৃষ

  • sagittarius

    মিথুন

  • sagittarius

    কর্কট

  • sagittarius

    সিংহ

  • sagittarius

    কন্যা

  • sagittarius

    তুলা

  • sagittarius

    বৃশ্চিক

  • sagittarius

    মকর

  • sagittarius

    কুম্ভ

  • sagittarius

    মীন

  • sagittarius

    ধনু

  • মেষ (২১ জানুয়ারী-২৮ ফ্রেরুয়ারী)

    ব্যক্তিগত যোগাযোগ সাফল্যের দিগন্তে পৌঁছে দিতে পারে। দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে পারে। প্রাণের মানুষ প্রাণের পরে পদাঘাত করতে পারে, সতর্ক থাকুন।আপনি সব ব্যথা সয়ে নিতে পারেন এটাও পারবেন।

  • বৃষ (২১ এপ্রিল-২১ মে)

    এসপ্তাহে হাতে যখন বেশ কিছু টাকা পয়সা আসবে তখন টাকাটা একটু কাজে লাগাবার চেষ্টা করুন। অতিথি, বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে মিলন ঘটবে। পরিবারের কেউ অসুস্থ হতে পারে।  মনের লেনাদেনা খারপ যাবেনা। 

  • মিথুন (২২ মে-২১ জুন)

    এসপ্তাহে আপনার দেহ মনের খবর ভাল। মনন চর্চায় নতুন উৎকর্ষে পৌঁছোবেন।

    পরিবার পরিজনের খোঁজ খবর রাখুন। সপ্তাহ জুড়ে ভাও যাবে সময়। 

     

     

  • কর্কট (২২ জুন-২২ জুলাই)

     

    খরচাটা একটু কমান। পূর্বের কোনো কর্মের ফল ভোগ করতে হতে পারে।। স্বল্প দূরত্বে ভ্রমণ হতে পারে। ছোট ভাইবোনের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো যাবে। প্রয়োজনে তাদের সমর্থন ও সহযোগিতা পাবেন।

  • সিংহ (২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট)

     

    এসপ্তাহে টাকা পয়সা প্রাপ্তি আপনাকে উৎফুল্ল রাখবে। পরিবার বন্দু-বান্ধব উপকারে এগিয়ে আসবে। সাবধানে চলাচল করুন। একটু অসাবধানতার কারণে দুর্ঘটনায় পতিত হতে পারেন। 

  • কন্যা (২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর)

    নতুন কাজে যুক্ত হতে পারেন। পেশাগত দিক ভালো যাবে। কর্মক্ষেত্রে সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধি পাবে। সামাজিক অগ্রগতি অব্যাহত থাকবে। আয় উপার্জন বৃদ্ধির যোগ রয়েছে। 

  • তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর)

    ধর্ম কর্মে মন নিবেশ হবে। ভাগ্যোন্নয়ণে প্রবীণ কারও দিকনির্দেশনা লাভ করতে পারেন। কর্মক্ষত্র থাকবে আপনার পক্ষে। বুঝে শুনে চললে ব্যবসা ভাল যাবে। 

  • বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর)

    কাজের চাপ বাড়বে। কাজ ফেলে না রেখে রুটিন অনুসারে করার চেষ্টা করুন।মানসিক চাপ পাত্তা দেবেন না। নিজেকে সংযত রাখুন, অন্যথায় সামাজিক বদনামের শিকার হতে পারেন। আনন্দময় সময় কাটানোরও সুযোগ পেতে পারেন।

  • মকর (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি)

    শরীর খুব একটা ভালো নাও যেতে পারে। আহারে বিহারে সাবধানতা অবলম্বন করুন। কোনো ভুল সিদ্ধান্তের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা রয়েছে। কর্মক্ষেত্রে দায় দায়িত্ব বাড়বে, বিতর্ক এড়িয়ে চলুন। 

  • কুম্ভ (২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

    দূরদর্শী চিন্তাভাবনা আপনাকে সতেজ ও প্রাণবন্ত রাখবে। গবেষণামূলক কর্মকাণ্ডের জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।  সাময়িকভাবে শরীর কম ভালো যেতে পারে। 

  • মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

    আজ আপনার সেই ইচ্ছেটা  পূর্ণ হতে পারে। প্রেম ও দাম্পত্য বিষয়ে বোঝাপড়া সহজ হবে। কেউ কেউ স্থাবর সম্পত্তিতে বিনিয়োগ করতে পারেন।  ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে।

  • ধনু (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর)

    দাম্পত্য সম্পর্ক মোটামুটি ভালো যাবে। পারিবারিক সুখশান্তি বজায় থাকবে। কোনো বিষয়ে চুক্তি হতে পারে। কোনো ধরনের প্রতিযোগীতার সম্মুখীন হতে পারেন। বিশেষ কোনো দক্ষতার জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।

পাঠক মতামত

রোহীঙ্গা ইস্যু নিয়ে মায়ানমার বাংলাদেশের সাথে বৈঠকে বসতে চায়, আপনি কি মনে করেন মায়ানমার সহজে বাংলাদেশ থেকে রোহীঙ্গাদের ফিরিয়ে নিয়ে যাবে ?
ভোট দিয়েছেন জন
হ্যাঁ
না
মন্তব্য নেই