গ্রাহক পর্যায়ে পল্লী বিদ্যুতের দাম ১০.৭৫ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (আরইবি)

Sohag Sheikh ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ অর্থনীতি
img

গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম গড়ে ১০ দশমিক ৭৫ শতাংশ বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড (আরইবি)। পাশাপাশি ন্যূনতম বিল ও সার্ভিস চার্জ বাড়ানোরও আবেদন জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। গতকাল বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনে (বিইআরসি) চলা ধারাবাহিক গণশুনানির তৃতীয় দিনে এ প্রস্তাব তুলে ধরেন আরইবি চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন। তা পর্যালোচনা করে ইউনিটপ্রতি ৭ দশমিক ১৯ শতাংশ বা ৪৪ পয়সা বাড়ানোর পক্ষে মত দিয়েছে বিইআরসির কারিগরি মূল্যায়ন কমিটি।
এদিকে শুনানিতে অংশ নিয়ে গ্রাহক ও ব্যবসায়ী প্রতিনিধি এবং রাজনীতিকরা জানান, গ্রামে মানসম্মত বিদ্যুৎসেবা পাওয়া যাচ্ছে না। প্রতিদিন ৮ থেকে ১০ ঘণ্টা বিদ্যুৎ থাকে না। মাসিক বিল, মিটার সংযোগসহ প্রতি সেবার জন্য হয়রানির শিকার হন সাধারণ গ্রাহক। যেখানে বিদ্যুৎই থাকে না সেখানে মূল্যবৃদ্ধির প্রশ্নই আসে না। পল্লী অর্থনীতির বিকাশের জন্য মানসম্মত বিদ্যুৎসেবা নিশ্চিতে প্রয়োজনে সরকারকে সরাসরি ভর্তুকি দিতে হবে। কিন্তু কোনোভাবেই গ্রহাক পর্যায়ে দাম বাড়ানো যাবে না।
তবে দাম বাড়ানোর পেছনে যুক্তি তুলে ধরে আরইবি চেয়ারম্যান বলেন- জনবল, অবকাঠামো, পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণ, অবচয় খরচ বেড়েছে। তা ছাড়া ২০১৬-১৭ অর্থবছরে নিট খুচরা সরবরাহ ব্যয় ইউনিট প্রতি ৬ টাকা ৭০ পয়সা। বিদ্যমান খুচরা ট্যারিফ ইউনিটপ্রতি ৬ টাকা ৫০ পয়সা। অর্থাৎ প্রতিইউনিটেই ঘাটতি ৬৫ পয়সা। গত অর্থবছরে আরইবি ৮০০ কোটি টাকা লোকসান দিয়েছে। ৭৯টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মধ্যে মাত্র ১১টি আর্থিকভাবে সচ্ছল। অসচ্ছল সমিতিগুলো তাদের ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে পারছে না। ঋণ ও সুদের কিস্তি বকেয়া পড়েছে ৬ হাজার ২০০ কোটি টাকা।
বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর পাশাপাশি আবাসিকে ন্যূনতম বিল ৬৫ থেকে ২০ টাকা বাড়িয়ে ৮৫ টাকা করার প্রস্তাব দিয়েছে আরইবি। এ ছাড়া সার্ভিস চার্জ ১০ থেকে বাড়িয়ে ১৫ টাকা করার আবেদন জানানো হয়েছে। আবাসিকে সর্বনিম্ন এক দশমিক ৫৬ থেকে ১২ দশমকি ৪৩ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে। সর্বোচ্চ বৃদ্ধির প্রস্তাব এসেছে ৩০১ থেকে ৪০০ ইউনিট ব্যবহারকারী গ্রাহকদের। এই ধাপে বর্তমানে ইউনিটপ্রতি দাম ৫ টাকা ৬৩ পয়সা, আরইবির প্রস্তাব অবশ্য ৬ টাকা ৩৩ পয়সা। অর্থাৎ বর্তমান দাম থেকে ৭০ পয়সা বাড়াতে চায়। অন্যান্য শ্রেণির গ্রাহকদের ক্ষেত্রেও সার্ভিসচার্জ বাড়ানোর আবেদন করা হয়েছে।
আরইবির সারা দেশে গ্রাহক রয়েছে দুই কোটি এক লাখ। এর মধ্যে ৭৫ শতাংশই আবাসিক। তাদের প্রস্তাব বিবেচনা করে মূল্যায়ন কমিটি জানিয়েছে, অন্যান্য কোম্পানির চেয়ে কম দামে পাইকারি বিদ্যুৎ কেনায় বছরে আরইবির প্রায় ৩ হাজার ৮০০ কোটি টাকার মতো সাশ্রয় হয়। এর পরও বিতরণ ব্যয় বাড়ায় গ্রাহক পর্যায়ে বিদ্যুতের দাম বাড়ানো উচিত। তাই কমিটি কমিশনের কাছে ইউনিটপ্রতি গড়ে ৪৪ পায়সা বৃদ্ধির সুপারিশ রেখেছে।
শুনানিতে অংশ নিয়ে ভোক্তা অধিকার সংগঠন ক্যাবের জ্বালানি উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. এম শামসুল আলম বলেন, রাজধানী ও শহরের মানুষ ভালোমানের বিদ্যুৎসেবা পেলেও গ্রামের জনগণ তা থেকে বঞ্চিত। নিজের উদাহারণ টেনে তিনি বলেন- আমার বাসা সেগুনবাগিচায়, যেখানে লোশেডিং প্রায় হয় না। মাঝে মাঝে কুষ্টিয়া জেলা শহরে গেলেও সহনীয় লোডশেডিং চোখে পড়েছে। কিন্তু গ্রামের বাড়িতে বিদ্যুৎ কখন আসে সেটিই বলা মুশকিল। এমন অবস্থায় বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাব যৌক্তিক নয়।
তিনি আরও বলেন, আরইবির জন্য অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিদ্যুতের সংস্থান রাখতে হবে। বিশেষ করে রাতের বেলা তাদের বিদ্যুতের প্রয়োজন বেশি। এ জন্য কমিশনের বিশেষ নির্দেশনার আবেদন জানান তিনি।
সিপিবি নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেন, আরইবি নিম্নমানের মিটার ও ট্রান্সফরমার সরবরাহ করে বলে অভিযোগ। তা দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। এ ছাড়া গ্রহাকদের মিটার যাচাই না করেই ভুতুড়ে বিলের অভিযোগ পাওয়া যায়। এসব অভিযোগ খতিয়ে দেখতে আরইবি কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। পাশাপাশি সেবা না বাড়িয়ে বিদ্যুতের দাম না বাড়ানোই উচিত বলে মনে করেন এই বাম নেতা।
গণশুনানিতে সভাপতিত্ব করেন বিইআরসির চেয়ারম্যান মনোয়ার ইসলাম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কমিশনের সদস্য রহমান মুরশেদ, মাহমুদউল হক ভূঁইয়া, আবদুল আজিজ খান ও মিজানুর রহমানসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের প্রতিনিধিরা।

সম্পর্কিত পোস্ট

আমাদের ফেইসবুক

রাশিফল

  • sagittarius

    মেষ

  • sagittarius

    বৃষ

  • sagittarius

    মিথুন

  • sagittarius

    কর্কট

  • sagittarius

    সিংহ

  • sagittarius

    কন্যা

  • sagittarius

    তুলা

  • sagittarius

    বৃশ্চিক

  • sagittarius

    মকর

  • sagittarius

    কুম্ভ

  • sagittarius

    মীন

  • sagittarius

    ধনু

  • মেষ (২১ জানুয়ারী-২৮ ফ্রেরুয়ারী)

    ব্যক্তিগত যোগাযোগ সাফল্যের দিগন্তে পৌঁছে দিতে পারে। দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে পারে। প্রাণের মানুষ প্রাণের পরে পদাঘাত করতে পারে, সতর্ক থাকুন।আপনি সব ব্যথা সয়ে নিতে পারেন এটাও পারবেন।

  • বৃষ (২১ এপ্রিল-২১ মে)

    এসপ্তাহে হাতে যখন বেশ কিছু টাকা পয়সা আসবে তখন টাকাটা একটু কাজে লাগাবার চেষ্টা করুন। অতিথি, বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে মিলন ঘটবে। পরিবারের কেউ অসুস্থ হতে পারে।  মনের লেনাদেনা খারপ যাবেনা। 

  • মিথুন (২২ মে-২১ জুন)

    এসপ্তাহে আপনার দেহ মনের খবর ভাল। মনন চর্চায় নতুন উৎকর্ষে পৌঁছোবেন।

    পরিবার পরিজনের খোঁজ খবর রাখুন। সপ্তাহ জুড়ে ভাও যাবে সময়। 

     

     

  • কর্কট (২২ জুন-২২ জুলাই)

     

    খরচাটা একটু কমান। পূর্বের কোনো কর্মের ফল ভোগ করতে হতে পারে।। স্বল্প দূরত্বে ভ্রমণ হতে পারে। ছোট ভাইবোনের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো যাবে। প্রয়োজনে তাদের সমর্থন ও সহযোগিতা পাবেন।

  • সিংহ (২৩ জুলাই-২৩ আগস্ট)

     

    এসপ্তাহে টাকা পয়সা প্রাপ্তি আপনাকে উৎফুল্ল রাখবে। পরিবার বন্দু-বান্ধব উপকারে এগিয়ে আসবে। সাবধানে চলাচল করুন। একটু অসাবধানতার কারণে দুর্ঘটনায় পতিত হতে পারেন। 

  • কন্যা (২৪ আগস্ট-২৩ সেপ্টেম্বর)

    নতুন কাজে যুক্ত হতে পারেন। পেশাগত দিক ভালো যাবে। কর্মক্ষেত্রে সুনাম ও মর্যাদা বৃদ্ধি পাবে। সামাজিক অগ্রগতি অব্যাহত থাকবে। আয় উপার্জন বৃদ্ধির যোগ রয়েছে। 

  • তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর-২৩ অক্টোবর)

    ধর্ম কর্মে মন নিবেশ হবে। ভাগ্যোন্নয়ণে প্রবীণ কারও দিকনির্দেশনা লাভ করতে পারেন। কর্মক্ষত্র থাকবে আপনার পক্ষে। বুঝে শুনে চললে ব্যবসা ভাল যাবে। 

  • বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর-২২ নভেম্বর)

    কাজের চাপ বাড়বে। কাজ ফেলে না রেখে রুটিন অনুসারে করার চেষ্টা করুন।মানসিক চাপ পাত্তা দেবেন না। নিজেকে সংযত রাখুন, অন্যথায় সামাজিক বদনামের শিকার হতে পারেন। আনন্দময় সময় কাটানোরও সুযোগ পেতে পারেন।

  • মকর (২২ ডিসেম্বর-২০ জানুয়ারি)

    শরীর খুব একটা ভালো নাও যেতে পারে। আহারে বিহারে সাবধানতা অবলম্বন করুন। কোনো ভুল সিদ্ধান্তের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা রয়েছে। কর্মক্ষেত্রে দায় দায়িত্ব বাড়বে, বিতর্ক এড়িয়ে চলুন। 

  • কুম্ভ (২১ জানুয়ারি-১৮ ফেব্রুয়ারি)

    দূরদর্শী চিন্তাভাবনা আপনাকে সতেজ ও প্রাণবন্ত রাখবে। গবেষণামূলক কর্মকাণ্ডের জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।  সাময়িকভাবে শরীর কম ভালো যেতে পারে। 

  • মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি-২০ মার্চ)

    আজ আপনার সেই ইচ্ছেটা  পূর্ণ হতে পারে। প্রেম ও দাম্পত্য বিষয়ে বোঝাপড়া সহজ হবে। কেউ কেউ স্থাবর সম্পত্তিতে বিনিয়োগ করতে পারেন।  ব্যবসায়িক দিক ভালো যাবে।

  • ধনু (২৩ নভেম্বর-২১ ডিসেম্বর)

    দাম্পত্য সম্পর্ক মোটামুটি ভালো যাবে। পারিবারিক সুখশান্তি বজায় থাকবে। কোনো বিষয়ে চুক্তি হতে পারে। কোনো ধরনের প্রতিযোগীতার সম্মুখীন হতে পারেন। বিশেষ কোনো দক্ষতার জন্য প্রশংসিত হতে পারেন।

পাঠক মতামত

রোহীঙ্গা ইস্যু নিয়ে মায়ানমার বাংলাদেশের সাথে বৈঠকে বসতে চায়, আপনি কি মনে করেন মায়ানমার সহজে বাংলাদেশ থেকে রোহীঙ্গাদের ফিরিয়ে নিয়ে যাবে ?
ভোট দিয়েছেন ১০ জন
হ্যাঁ
না
মন্তব্য নেই